কখনো হেঁচকি উঠে নি এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দুষ্কর কারণ শিশু থেকে শুরু করে সকল বয়সের মানুষের ক্ষেত্রেই হেঁচকি হতে পারে। যদিও অধিকাংশ সময়েই হেঁচকি এমনিতেই ঠিক হয়ে যায় তবে ক্ষেত্রবিশেষে এটি দীর্ঘসময় পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে।

হেঁচকি থামানোর জন্য অনেকেই বিভিন্ন পন্থা অবলম্বন করে থাকেন যা অধিকাংশ সময়েই হয়তো ফলপ্রসূ হয় না। আর তাই এই অনুচ্ছেদে আমরা দ্রুত হেঁচকি থামানোর ৮ টি কার্যকরী টিপস এবং ট্রিক্স নিয়ে আলোচনা করবো। সেই সাথে হেঁচকি কেন হয় এবং চিকিৎসা ছাড়া হেঁচকি কতক্ষণ পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে সে ব্যাপারেও আলোচনা রয়েছে যা আপনার কৌতুহল মেটাতে সহায়তা করবে।‌ এছাড়াও অনুচ্ছেদের শেষের দিকে রয়েছে বাচ্চাদের হেঁচকি বন্ধ করার উপায় সমূহ।

হেঁচকি কি? (What is Hiccup)

হেঁচকি কোনো রোগ নয় বরং শারীরবৃত্তীয় কোনো ত্রুটি বা রোগের লক্ষণ যাকে চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় Hiccups অথবা Hiccoughs বলা হয়। মানবদেহের ডায়াফ্রামের (Diaphragm) অস্বাভাবিক সংকোচনের ফলে হেঁচকি উঠে থাকে। ডায়াফ্রাম হলো একধরনের পর্দা বিশেষ যা ফুসফুসের নিচে থাকে এবং ক্রমাগত সংকোচন ও প্রসারণের মাধ্যমে উপর‌ নিচে উঠানামা করে।

হেঁচকি কত প্রকার?

হেঁচকির স্থায়ীত্বকাল অনুযায়ী একে দুই ভাগে ভাগ করা হয়ে থাকে। (Giorgi, 2021) যেমন:

  1. Short-term hiccups: অল্পক্ষণ স্থায়ী অর্থাৎ কয়েক মিনিট থেকে সর্বোচ্চ কয়েক ঘন্টা পর্যন্ত স্থায়ী হলে তাকে short-term hiccups নামে অভিহিত করা হয়।
  2. Long-term hiccups: ৪৮ ঘন্টার বেশি সময় ধরে হেঁচকি হলে তা long-term hiccups হিসেবে বিবেচিত হয় এবং এক্ষেত্রে হেঁচকি ওঠার পেছনে বিশেষ কারণ থাকে।

হেঁচকি কেন হয়?

সাধারণত short-term হেঁচকির পেছনে কোনো বিশেষ কারণ থাকে না এবং প্রায় সময়েই তা এমনিতেই ঠিক হয়ে যায়। তবে চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা কিছু কিছু বিষয়কে কারণ হিসেবে মনে করে থাকেন। (Giorgi, 2021)

যেমন:

  • অতিরিক্ত ভোজন করা
  • অধিক মশলাযুক্ত খাবার খাওয়া
  • কোমল পানীয় (Carbonated beverages) পান করা
  • মদ্যপানের অভ্যাস
  • অতিরিক্ত গরম বা অতিরিক্ত ঠান্ডা খাবার খাওয়া
  • হঠাৎ বায়ুর তাপমাত্রা পরিবর্তন হওয়া
  • অধিক ‌পরিমাণে বায়ু গলাধঃকরণ করা (Aerophagia)
  • উত্তেজনা বা মানসিক চাপ ইত্যাদি

উল্লেখ্য মহিলাদের তুলনায় পুরুষদের ক্ষেত্রে হেঁচকি হওয়ার অধিক সম্ভাবনা রয়েছে। (Giorgi, 2021)

চিকিৎসা ছাড়া হেঁচকি কতক্ষন পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে?

যদিও প্রায় সময়েই হেঁচকি এমনিতেই ভালো হয়ে যায় কিন্তু কখনো কখনো চিকিৎসার প্রয়োজন হয়ে থাকে। Short-term হেঁচকি কয়েক মিনিট থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ কয়েক ঘন্টা পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে। তবে long term হেঁচকির‌ ক্ষেত্রে যথাযথ চিকিৎসা ব্যবস্থা গ্রহণ করা না হলে তা সর্বোচ্চ ২ মাস‌‌ পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে। দীর্ঘস্থায়ী হেঁচকি শরীরের উপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে পারে। যেমন:

  • অল্প বিরতি সম্পন্ন (Short intervals) দীর্ঘমেয়াদী হেঁচকি খাবার গ্রহণের ক্ষেত্রে ব্যঘাত ঘটিয়ে থাকে যা শরীরের ওজন কমে যাওয়া ও পানি স্বল্পতার (Dehydration) কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে ।
  • রাতের বেলায় হেঁচকি হতে থাকলে তা ভালো ঘুমের ক্ষেত্রে ব্যঘাত সৃষ্টি করে থাকে ।
  • কথা বলতে সমস্যা হয় ।
  • দুর্বলতা ও ক্লান্তি দেখা দেয়।

এছাড়াও মানসিক বিষণ্নতা (Depression) সহ অনিয়মিত হৃদস্পন্দন দেখা যেতে পারে। আর‌ তাই হেঁচকি নিরসনে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ অথবা চিকিৎসা ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত। (Brazier, 2021)

হেঁচকি কিভাবে প্রতিরোধ করা যায়?

হেঁচকি থামানোর উপায়

হেঁচকি উঠা কারো কাছেই সুখকর অনুভূতি নয় বরং তা বিরক্তিকর মনে হতে পারে। আর তাই কিভাবে হেঁচকি উঠা থেকে পরিত্রাণ পাওয়া যায় সেই ব্যাপারে জানতে সবাই মরিয়া হয়ে গুগল বা ইন্টারনেট ঘাঁটাঘাঁটি করে থাকেন। এছাড়াও প্রচলিত অনেক পদ্ধতি রয়েছে যার অধিকাংশই আবার অবৈজ্ঞানিক অথবা ক্ষতিকর। আর তাই এই পর্যায়ে আমরা হেঁচকি থেকে দ্রুত মুক্তির উপায় বিষয়ক আলোচনা করবো। তবে তার আগে জেনে নেওয়া যাক কিভাবে হেঁচকি প্রতিরোধ করা যায়? অর্থাৎ কি কি নিয়ম মেনে চললে হেঁচকি উঠার সম্ভাবনা কম থাকে?

  • ধীরে ধীরে খাবার খাওয়া
  • খাওয়ার সময় মনোযোগ অন্যদিকে দেওয়া যাবে না। যেমন: টিভি দেখা অথবা মোবাইল ফোন চালানো ইত্যাদি
  • অতিরিক্ত পরিমাণে খাবার খাওয়া (Overeating) যাবে না
  • কোমল পানীয় পান করার অভ্যাস কমাতে হবে
  • মদ্যপানের অভ্যাস থাকলে তা পরিত্যাগ করা আবশ্যক
  • কাজের চাপ অথবা মানসিক উদ্বেগ পরিহার করুন। যতটা সম্ভব নিজেকে শান্ত রাখার চেষ্টা করতে হবে

হেঁচকি উঠলে দ্রুত মুক্তির উপায়! (হেঁচকি উঠলে কি করণীয়?)

হেঁচকি দূর করতে যে সমস্ত উপায়গুলো প্রচলিত রয়েছে তার অধিকাংশই গবেষণায় প্রমাণিত হয়নি। তবে এই পর্যায়ে হেঁচকি নিরসনে কার্যকরী ৮ টি টিপস এবং ট্রিক্স তুলে ধরা হলো এবং তা কিভাবে কাজ করে সেই ব্যাপারে আলোচনা করা হয়েছে। (Giorgi, 2021)

১। লম্বা শ্বাস নিয়ে যতক্ষণ সম্ভব দম বন্ধ করে রাখুন। এতে করে রক্তে অতিরিক্ত পরিমাণে কার্বন ডাই অক্সাইড জমা হতে থাকে আর তখন মস্তিষ্ক সেই দিকে বেশি গুরুত্বারোপ করে। ফলে হেঁচকি উঠতে সহায়তাকারী স্নায়ুতে (Vagus nerve) সিগন্যাল পাঠাতে ব্যর্থ হয় এবং হেঁচকি বন্ধ হয়ে যায়।

২। একই প্রক্রিয়ায় হেঁচকি নিরসন হয়ে থাকে কাগজের ব্যাগের মধ্যে শ্বাস-প্রশ্বাস কার্যক্রম চালানোর ফলে রক্তে কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ বাড়ানোর মাধ্যমে। তবে এক্ষেত্রে পলিথিনের ব্যাগ ব্যবহার করা উচিত নয়।

৩। চমকে দেওয়া অথবা কোনো ভাবে মনোযোগ অন্যদিকে নেওয়ার মাধ্যমেও Vagus nerve এর উপর মস্তিষ্কের ক্রিয়া নিস্ক্রিয় করা যায়।

৪। উল্টো দিকে গণনা (যেমন ১০০ থেকে ১ এর দিকে) করার মাধ্যমেও মনোযোগ বিচ্ছিন্ন করা যেতে পারে।

৫। এক চামচ ‌চিনি অথবা মধু জিহ্বার পেছনের দিকে (On the back of tongue) ১০ থেকে ১৫ সেকেন্ড যাবত রেখে দিন। অতঃপর তা গিলে খেয়ে ফেলুন। এই পদ্ধতিতে চিনি‌ অথবা মধু রাখা হলে তা স্নায়ুকোষকে (Vagus nerve) উদ্দীপ্ত করে এবং তাতে করে হেঁচকি বন্ধ হয়ে যায়।

৬। একই ভাবে মিষ্টির পরিবর্তে টকজাতীয় খাবার যেমন লেবু অথবা আপেল সিডার ভিনেগার জিহ্বায় রাখার মাধ্যমে স্নায়ুকোষ উদ্দীপ্ত হয় এবং সেই সাথে হেঁচকি নিরসন হয়ে থাকে ।

৭। ঘরে থাকা যে কোনো ধরনের এসিডিটির ওষুধ সেবন করা হলে তা হেঁচকি নিরসনে কার্যকরী ভূমিকা রাখতে পারে কারণ অনেক সময় গ্যাসের কারণে হেঁচকি হয়ে থাকে ।

৮। Valsalva maneuver নামক একটি পদ্ধতি হেঁচকি বন্ধ করতে কার্যকরী ভূমিকা রাখতে পারে। এই পদ্ধতিতে নাক ও মুখ চেপে ধরে শ্বাস ফেলার চেষ্টা করতে হয় আর তাতে করে বুকের মধ্যে চাপের সৃষ্টি হয়। সেই সাথে Vagus nerve এ চাপ‌ পড়ে আর যার দরুন হেঁচকি বন্ধ হয়ে যায় ।  (Giorgi, 2021)

হেচকি বন্ধ করার Medicine

হেচকি বন্ধ করার Medicine

হেঁচকি নিরসনে যুক্তরাষ্ট্রের ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (FDA – food and drug administration) কর্তৃক নির্দেশিত ওষুধ হলো Chlorpromazine যা সবচেয়ে বেশি কার্যকরী হিসেবে পরিচিত। (Brazier, 2021) তবে অন্যান্য আরো কিছু ওষুধ রয়েছে যা হেঁচকি বন্ধ করতে সহায়ক ভূমিকা পালন করতে পারে। যেমন:

  • Metoclopramide: ইহা মূলত বমি বমিভাব (nausea) দূর করতে কার্যকরী ওষুধ তবে হেঁচকি নিরসনেও সহায়তা করে থাকে কারণ হেঁচকি এবং বমি বমিভাব উভয়ের ক্ষেত্রেই ডায়ফ্রামের ভূমিকা রয়েছে।
  • Baclofen: যা মাংসপেশী তথা ডায়াফ্রামকে সুস্থিত (muscle relaxant) রাখতে সহায়তা করে।
  • Gabapentin: যা মূলত খিঁচুনির ওষুধ আর তাই হেঁচকি বন্ধ করার জন্য ব্যবহারের ক্ষেত্রে চিকিৎসকের নির্দেশনা (Prescription) অনুযায়ী সেবন করা উচিত।‌
  • অন্যান্য: এছাড়াও আরো যে সমস্ত ওষুধ কার্যকরী ভূমিকা রাখতে পারে তা হলো chlorpromazine, haloperidol, benzodiazepines, diphenhydramine, nifedipine ইত্যাদি।

হেঁচকি উঠার কারণ ও প্রতিকার!

এই পর্যায়ে Long-term হেঁচকি উঠার কারণ‌ ও প্রতিকার সম্পর্কে জানা যাক। সাধারণত এই ধরনের হেঁচকির কারণ হিসেবে নিম্নলিখিত বিষয়গুলোকে দায়ী করা হয়। যেমন:

  • মাথায় আঘাত অথবা ইনফেকশন (brain infections)
  • স্ট্রোক অথবা মস্তিষ্কের টিউমার
  • মস্তিষ্কে পানি জমে যাওয়া (hydrocephalus)
  • দীর্ঘদিন ‌যাবত মদ্যপান করা
  • ডায়াবেটিস (Diabetes) ও কিডনির সমস্যা
  • পারকিনসন রোগ (Parkinson’s disease)
  • ক্যান্সার ও কেমোথেরাপির পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া
  • শ্বাসনালি অথবা খাদ্যনালীর এন্ডোসকোপি (Endoscopy) করা
  • কিছু কিছু ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া যেমন: Barbiturates, steroids, and tranquilizers

সাধারণত Long-term হেঁচকি প্রতিকারের জন্য সর্বপ্রথম কারণ খুঁজে বের করার জন্য কিছু পরীক্ষা নিরীক্ষা করানোর প্রয়োজন হয়ে থাকে। যেমন:

  • ডায়াবেটিস, ইনফেকশন ও কিডনির সমস্যা নির্ণয়ের জন্য রক্ত পরীক্ষা
  • ডায়াফ্রামের অবস্থা বুঝার জন্য ‌বুকের এক্সরে (Chest x-ray), সিটিস্ক্যান (CT scan) অথবা এমআরআই (MRI)
  • ইসিজি (ECG- Electrocardiogram)
  • Bronchoscopy ইত্যাদি

যথাযথ কারণ নির্ণয়ের পর সেই অনুযায়ী চিকিৎসা ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। যেমন: পাকস্থলীর সমস্যা বা এসিডিটির দরুন হলে সেক্ষেত্রে এসিডিটির ওষুধ সেবন করতে হবে। আবার ডায়াফ্রামের ত্রুটির কারণে হলে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী প্রয়োজনে সার্জারি (Surgery) করতে হবে।

বাচ্চাদের হেঁচকি বন্ধ করার উপায়

বড়দের মতো শিশু বাচ্চাদের ক্ষেত্রেও ডায়াফ্রামের অস্বাভাবিক সংকোচনের দরুন হেঁচকি হতে পারে। অনেকেই মনে করে থাকেন যে কেউ হয়তো শিশুকে স্মরণ করেছেন অথবা বকা দিয়েছেন কিন্তু চিকিৎসা বিজ্ঞানের মতে হেঁচকি উঠার সাথে এসবের কোনো সম্পর্ক নেই। আর তাছাড়া হেঁচকি উঠলে তার জন্য খুব বেশি বিচলিত হওয়ার কিছু নেই। কারণ প্রায় সময়েই এটি ক্ষতিকর হয় না বরং কিছু সময় পরে আপনা আপনি ঠিক হয়ে যায়। শিশু বাচ্চাদের ক্ষেত্রে সাধারণত নিম্নলিখিত বিষয়গুলো হেঁচকি উঠার জন্য দায়ী হতে পারে। যেমন:

  • শিশুকে অতিরিক্ত পরিমাণে খাওয়ানো অথবা জোর জবরদস্তি করে খাওয়ানো
  • শুয়ে থেকে বুকের দুধ খাওয়ানো যার ফলে বাচ্চার পেটে গ্যাস জমে হেঁচকি হতে পারে
  • ফিডার খায় এমন বাচ্চাদের ক্ষেত্রে হেঁচকি হওয়ার অধিক সম্ভাবনা রয়েছে

বাচ্চাদের ক্ষেত্রে হেঁচকি বন্ধ করার জন্য করণীয় বিষয়াবলী হলো:

  • পিট চাপড়ে দেওয়া
  • সামান্য পরিমাণে পানি খাওয়ানো
  • সামান্য চিনি অথবা লেবু খেতে দিলেও হেঁচকি কমতে পারে

অনেকেই ধারণা করে থাকেন যে শিশুকে চমকে দিলে হেঁচকি উঠা বন্ধ হয়ে যাবে।‌ কিন্তু শিশু বাচ্চাদের জন্য এটি নিরাপদ ও স্বাস্থ্যসম্মত নয় কারণ তাতে বাচ্চার বুদ্ধিবৃত্তির উপর ক্ষতিকর প্রভাব পড়তে পারে। আর তাই এই ধরনের পদ্ধতি অবলম্বন করার ব্যাপারে নিরুৎসাহিত করা হয়। এছাড়াও অনেকেই হেঁচকি নিরসনের জন্য বাচ্চার জিহ্বা ধরে টানাটানি করে থাকেন যা সম্পূর্ণভাবে অনুচিত। (Wells, 2020)

শিশুদের ক্ষেত্রে হেঁচকি যদি ১ ঘন্টার বেশি সময় ছাড়িয়ে যায় অথবা নাকে মুখে বমি হতে শুরু করে তবে সে ক্ষেত্রে একজন শিশু রোগ বিশেষজ্ঞের (Pediatrician) পরামর্শ গ্রহণ করা উচিত। কারণ অনেক সময় এটি অন্য কোনো রোগের কারণে হতে পারে যেক্ষেত্রে যথাযথ চিকিৎসা ব্যবস্থার প্রয়োজন হতে পারে।

শিশুদের যেনো হেঁচকি না হয় অর্থাৎ হেঁচকি প্রতিরোধে কিছু করণীয় বিষয়াবলী রয়েছে। যেমন:

  • শিশুকে জোর জবরদস্তি করে অথবা অতিরিক্ত পরিমাণে খাওয়ানো উচিত নয়
  • শিশুর পেটে গ্যাস জমে যায় এমন কিছু খাওয়ানো যাবে না
  • শিশুকে খাওয়ানোর সাথে সাথেই শুইয়ে দেওয়া উচিত নয়। অন্তত ২০ থেকে ৩০ মিনিট বসিয়ে রাখুন (Wells, 2020)

Short-term হেঁচকি ‌জটিল কোনো রোগ বা সমস্যা নয়‌। এটি মাঝে মাঝে খুব বিরক্তিকর বটে কিন্তু একদম স্থায়ীভাবে হেঁচকি দূর করা সম্ভব নয়। তবে কিছু কার্যকরী উপায় রয়েছে যা দ্রুত হেঁচকি দূর করতে সহায়তা করে থাকে।‌ উপরন্তু হেঁচকি প্রতিরোধের জন্যেও করণীয় রয়েছে যা ইতিমধ্যেই এই অনুচ্ছেদে আলোচনা করা হয়েছে। কিন্তু, long-term হেঁচকি অবহেলা করা উচিত নয়, কারণ এটি জটিল কোন রোগের উপসর্গ হতে পারে।

 

 

References

Brazier, Y. (2021, November 23). Everything you need to know about hiccups: Causes, treatments, and more. Retrieved from Medical News Today: medicalnewstoday.com/articles/181573

Giorgi, A. (2021, November 22). Everything You Need to Know About Hiccups. Retrieved from Healthline: healthline.com/health/hiccups

Wells, D. (2020, October 13). How Can I Cure My Newborn’s Hiccups? Retrieved from Healthline: healthline.com/health/childrens-health/newborn-hiccups

Last Updated on July 25, 2022

Was this article helpful?
YesNo