বাঁধাকপি হলো Brassica গণের অন্তর্ভুক্ত একটি সবজি যার মূলত দুই টি প্রকরণ রয়েছে। যেমনঃ সবুজ বাঁধাকপি ও বেগুনি বাঁধাকপি। সবুজ বাঁধাকপি সচরাচর সবাই খেয়ে থাকেন কিন্তু বেগুনি বাঁধাকপি তেমন একটা খাওয়া হয় না। তবে আপনি জেনে অবাক হবেন যে, বেগুনি বাঁধাকপি তুলনামূলক বেশি পুষ্টিগুণ সম্পন্ন।

এই অনুচ্ছেদে বেগুনি বাঁধাকপি খাওয়ার উপকারিতা কি সেই বিষয়ে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করা হয়েছে। সেই সাথে অনুচ্ছেদের শেষের দিকটায় বেগুনি বাঁধাকপির একটি বিশেষ রেসিপি সম্পর্কে জানতে পারবেন।

বেগুনী বাঁধাকপির উপকারিতা 

কালার বা বর্ণ ভেদে দুই ধরনের বাঁধাকপির স্বাদের ক্ষেত্রে তেমন কোনো তারতম্য না থাকলেও পুষ্টিগুণ বিবেচনায় বেগুনি বাঁধাকপি সেরা। এর মধ্যে বিভিন্ন ধরনের পুষ্টি উপাদান রয়েছে। যেমনঃ কার্বোহাইড্রেট, ফাইবার, সামান্য পরিমাণে প্রোটিন, ভিটামিন এ, সি, কে, থায়ামিন, রিবোফ্লেভিন, পাইরিডক্সিন, ম্যাগনেসিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, পটাসিয়াম, আয়রন, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, কপার ও জিংক। এছাড়াও, এতে রয়েছে sulforaphane নামক বিশেষ একটি উপাদান যা হার্টের রোগের ঝুঁকি কমায় এবং ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াই করে সুস্থ থাকতে সহায়তা করে। নিয়মিত বেগুনি বাঁধাকপি খাওয়ার ফলে আরো যে সমস্ত উপকারিতা পেতে পারেন- (Petre, 2019)

১. অকাল-বয়স্কতা রোধ করে

লাল বাঁধাকপিতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ভিটামিন এ, ভিটামিন সি ইত্যাদি রয়েছে যা ত্বককে উজ্জ্বল করে এবং আপনাকে দেখাবে কমবয়স্ক ও স্বাস্থ্যবান। এর প্রদাহ নাশক গুণাবলী ত্বকে বয়সের ছাপ পড়তে দেয় না। এছাড়াও ত্বকের উপরিভাগের জ্বালাপোড়া দূর করতে এর পাতা বেটে অথবা ব্লেন্ডারের সহায়তায় পেস্ট বানিয়ে বাহ্যিকভাবে ব্যবহার করে উপকার পেতে পারেন।

২. অতিরিক্ত ওজন কমানোর উপায়

লাল বাঁধাকপিতে ক্যালরি থাকে কম, তবে প্রয়োজনীয় পুষ্টি, ভিটামিন, খনিজ এবং ডায়েটারি ফাইবারের পরিমাণ থাকে অনেক বেশি। যার ফলে এটি একবার গ্রহণ করলে অনেকক্ষণ পর্যন্ত পেট ভরা থাকে, ফলে ঘন ঘন খাবার গ্রহণের প্রয়োজন হয় না। তবে বাঁধাকপির

৩. হজম সমস্যা দূর করে

বেগুনি বাঁধাকপিতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার রয়েছে যা হজমে সহায়তা করে। এছাড়াও নিয়মিত এই সবজিটি খাওয়ার মাধ্যমে পরিপাকতন্ত্রের বিভিন্ন রোগের নিরাময় হয়ে থাকে। যেমনঃ Crohn’s disease, আইবিএস (IBS- irritable bowel syndrome), ulcerative colitis ইত্যাদি।

৪. শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়

লাল বাঁধাকপিতে ভিটামিন সি থাকে যা শ্বেত রক্তকণিকা তৈরি করতে সহায়তা করে এবং এই শ্বেত রক্তকণিকা আপনার দেহে জীবাণুর সংক্রমণ ও রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করে। ফলে, শরীর সহজেই রোগ জীবাণু দ্বারা আক্রান্ত হয় না।

৫. হার্ট ভালো রাখতে সহায়তা করে

বেগুনি বাঁধাকপিতে ৩৬ প্রকারের anthocyanins উপাদান রয়েছে যা উচ্চ রক্তচাপ সহ হার্টের রোগের ঝুঁকি কমায়। গবেষণায় দেখা গেছে, যারা নিয়মিত anthocyanins সমৃদ্ধ খাবার গ্রহণ করেন তাদের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৩২ শতাংশ পর্যন্ত হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কম থাকে। এছাড়াও এর প্রদাহ নাশক গুণাবলী রক্তে খারাপ কোলেস্টেরলের পরিমাণ বাড়তে দেয় না।

৬. ক্যান্সার প্রতিরোধ করে

বাঁধাকপি খুব সহজলভ্য এবং সস্তা হলেও এতে এমন এমন কিছু পুষ্টি উপাদান থাকে যা বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সার প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। যেমন- প্রোস্টেট, ফুসফুস, স্তন ও কোলন ক্যান্সার। এর ক্যান্সার প্রতিরোধী গুণের পেছনে রয়েছে ফাইটোকেমিক্যাল নামক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা ক্যান্সারের জন্য দায়ী ফ্রি র‌্যাডিকেলস গুলোকে নিউট্রালাইজ বা ধ্বংস করে দেয়।

Benefits of purple cabbage

৭. চোখের স্বাস্থ্য ভাল রাখে

চোখের স্বাস্থ্যের জন্য ‘ভিটামিন এ’ অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি উপাদান। আর বেগুনি বাঁধাকপিতে থাকা প্রচুর পরিমাণে ‘ভিটামিন এ’ যা রাতকানা রোগ প্রতিরোধ করা সহ সার্বিক ভাবে চোখের স্বাস্থ্য ভাল রাখে।

৮. শক্তিশালী হাড়ের বৃদ্ধি এবং বিকাশে সাহায্য করে

বেগুনি বাঁধাকপিতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, ভিটামিন কে, এবং সামান্য পরিমাণে ক্যালসিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, জিংক ইত্যাদি রয়েছে যা হাড়ের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে সহায়তা করে। অর্থাৎ হাড়ের ঘনত্ব ঠিক রাখে এবং অস্টিওপোরোসিস এর ঝুঁকি কমায়।

৯. আলঝেইমার রোগ হতে রক্ষা করে

আলজেইমার (Alzheimer) হলো মস্তিষ্কের একটি জটিলতর ব্যাধি যার ফলে স্মৃতি ও চিন্তাশক্তি লোপ পায়। বেগুনি বাঁধাকপি এই রোগ হওয়াকে প্রতিরোধ করতে পারে কেননা এতে অ্যান্থোসায়ানিন নামক এক ধরনের উপাদান থাকে যা শরীরে, আলঝেইমার রোগের জন্য দায়ী plaque তৈরির সম্ভাবনা হ্রাস করে।

বেগুনী বাঁধাকপির অপকারিতা 

বাঁধাকপি খুব নিরাপদ এবং স্বাস্থ্যসম্মত একটি খাবার যার কোনো অপকারিতা নেই বললেই চলে। তবে অতিরিক্ত পরিমাণে বাঁধাকপি খেলে কি হয় সেটা জানা থাকা দরকার। অতিরিক্ত পরিমাণে খাওয়ার ফলে তা হজম সংক্রান্ত সমস্যার সৃষ্টি করতে পারে। আবার এতে যেহেতু প্রচুর পরিমাণে ‘ভিটামিন কে’ রয়েছে আর তাই শরীরে এই ভিটামিনের আধিক্য জনিত নানাবিধ সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে। যেমনঃ লিভার ও কিডনির সমস্যা, রক্ত জমাট বাঁধা ইত্যাদি।

বাঁধাকপি ইংরেজি কি?

বাঁধাকপি english meaning হলো Cabbage. আর বেগুনি বাঁধাকপি english হলো Purple cabbage বা Red Cabbage. মূলত লাল বাঁধাকপি এবং বেগুনি বাঁধাকপি দ্বারা একই জিনিস বোঝানো হয়ে থাকে। উল্লেখ্য অনেকের কাছে এই সবজিটি পাতাকপি নামেও পরিচিত।

আয়ু বাড়াতে বেগুনী বাঁধাকপি রেসিপি

এতক্ষণে বাঁধাকপিতে কি কি ধরনের পুষ্টিগুণ থাকে এবং সেগুলো কিভাবে আমাদের স্বাস্থ্য রক্ষায় সহায়তা করে সেই বিষয়ে জানতে পারলেন। এখন, খুব চমৎকার একটি রেসিপি আমরা শেয়ার করব যার মাধ্যমে এতে থাকা সব ধরনের পুষ্টিগুণ (বরং তার চেয়ে কিছু বেশিও) আপনি একবারেই পেতে পারেন। আর এই রেসিপিটির খুব সুন্দর একটি নাম ধরে নিন- ‘বেগুনী পরশমণি রেসিপি’। চলুন দেখে নেওয়া যাক, কিভাবে তৈরি করা যায় এই রেসিপিটি-

প্রয়োজনীয় উপকরণ: 

  • ৪ ভাগের এক ভাগ লাল বাঁধাকপি
  • অর্ধেক শসা
  • ১টি সবুজ আপেল
  • এক মুঠ তাজা পুদিনা পাতা এবং
  • এক মুঠ তাজা তুলসী পাতা

 

প্রস্তুত প্রণালীঃ 

জুসটি বানানো খুবই সহজ। উপাদানগুলোর সাথে পরিমান মত পানি মিশিয়ে ভালভাবে ব্লেন্ড করলেই তৈরি হয়ে যাবে এই পরশমণি রেসিপি যা পান করার মধ্যে দিয়ে অনেক ধরনের স্বাস্থ্য উপকারিতা পাওয়া যাবে, শরীর হবে শক্তিশালী ও রোগমুক্ত যা আপনার সুস্থ এবং দীর্ঘায়ু জীবন নিশ্চিত করবে।

বেগুনি বাঁধাকপি রেসিপি

রান্নায় বাঁধাকপি রেসিপি

বেগুনি পরশণি রেসিপি ছাড়াও আরো নানাবিধ উপায়ে এটি খেতে পারেন-

বাঁধাকপি ভাজি

মজার একটি রেসিপি হলো বাঁধাকপি ভাজি যা ভাত, রুটি, পরোটা ইত্যাদির সাথে খাওয়া যায়। তবে খেয়াল রাখবেন, ভাজি করার সময় যেন অতিরিক্ত তেল ব্যবহার করা না হয়।

বাঁধাকপির তরকারি

যেকোনো ধরনের মাছের সাথে অন্যান্য সবজির পাশাপাশি বাঁধাকপি মিশিয়ে তরকারি খাওয়া যেতে পারে। তবে বাঁধাকপিতে প্রচুর পরিমাণে পানি রয়েছে যা তরকারিতে ঝোলের পরিমাণ বাড়িয়ে দিতে পারে। আর তাই আগে থেকেই পানির পরিমাণ কম দিয়ে রান্না করতে হবে।

বাঁধাকপির পকোড়া

বাঁধাকপি, বেসন, পেঁয়াজ, মরিচ, লবণ দিয়ে তেলে ভেজে চমৎকার পাকোড়া তৈরি করতে পারেন যা সন্ধ্যা কালীন নাস্তা হিসেবে খাওয়া যেতে পারে।

বাঁধাকপি রেসিপি নিরামিষ

হার্টের রোগী অথবা স্থূল ব্যক্তি যাদের জন্য তেল ও মশলাযুক্ত খাবার গ্রহণের ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে তারা বাঁধাকপি কুচি কুচি করে কেটে সামান্য পরিমাণে তেল, মরিচ ও লবণ দিয়ে নিরামিষ রেসিপি খেতে পারেন। এটি খুব বেশি সময় রান্না করার প্রয়োজন পড়ে না এবং এতে কোনো গন্ধ নেই বলে মশলা ব্যবহারের প্রয়োজন নেই।

উল্লেখ্য আপনাকে ঠিক বেগুনি বাঁধাকপি খেতে হবে এমনটি নয়, বরং সুবিধা মতো সবুজ বাঁধাকপি, ক্যাল (এটিও একধরনের বাঁধাকপি কিন্তু দেখতে অনেকটা ঘন লেটুস পাতার মত যা বেগুনী এবং গাঢ় সবুজ রং এর হয়ে থাকে), ব্রকলি ইত্যাদি খাওয়ার মাধ্যমে উপকার পেতে পারেন। কারণ এই সবগুলোই Brassica গণের অন্তর্ভুক্ত সবজি এবং প্রায় একই রকম উপকারিতা সম্পন্ন।

বাঁধাকপি উপকারিতা সম্পর্কে জানার পর অনেকেই হয়তো এটি খেতে উৎসাহ বোধ করবেন। আপনি চাইলে বাজার থেকে বাঁধাকপি বীজ কিনে শীতকালের শুরুতে রোপন করতে পারেন আর পরবর্তী থেকে ৩ মাসের মধ্যে নিজের ফলানো বাঁধাকপি খেতে পারবেন।

 

 

 

References

Petre, A. (2019, December 10). 8 Impressive Benefits of Purple Cabbage. Retrieved from Healthline: https://www.healthline.com/nutrition/purple-cabbage#TOC_TITLE_HDR_8

 

 

Last Updated on July 25, 2022

Was this article helpful?
YesNo